আস সুন্নাহ ট্রাস্ট
আস-সুন্নাহ ট্রাস্ট : সুন্নাতে উদ্ভাসিত জীবনের জন্যে
Question Category Answer
(4528) আসসালামুয়ালাইকুম আমি গার্মেন্টস ফ্যাক্টরিতে কাজ করি। বায়ার (যারা গার্মেন্টস ইন্সপেক্সন করেন) তারা মাঝে মধ্যে আমাকে কিছু শার্ট পেন্ট উপহার হিসাবে দেন। আমি যতটুকু জানি তারা পোশাক কিনে কিংবা গেট পাশ করে নিয়ে আসেন না। তাদের কে যারা দেন তারা ফ্যাক্টটির ই লোক। সোজা কথায় যদি বলি তারা এক রকম চুরি করেই নিয়ে আসেন। আমি ও মাঝে মধ্যে নেই ফ্যাক্টরি থেকে কিছু পোশাক নিয়ে ব্যাবহার করি। আমার প্রশ্ন হল এই চুরি করা পোশাক গায়ে দিলে কি পাপ হবে? এই চুরি করা পোশাক গায়ে দিয়ে কি নামাজ আদায় করা যাবে?? ব্যক্তিগত ও পারিবারিক
(4525) আমি আমার রুমে একা ঘুমাই। ঘুমানোর সময় যদি আমি খালি গায়ে ঘুমাই এবং আমার প্যান্ট নাভির নিচে নেমে যায় তাহলে কি আমার অযু চলে যাবে?  ব্যক্তিগত ও পারিবারিক
(4523) আস-সালামু আলাইকুম। একটি সন্তান জন্মের পর পরেই অন্য একটি পরিবার তাকে দত্তক নিয়ে নেয়। সন্তান টি সেই পরিবারে বড় হয় এবং পালিত বাবা মা কে সম্মান সূচক বাবা- মা ডাকে। তার জাতীয় পরিচয় পত্রে পালিত বাবা মা এর নাম দেওয়া আছে। এমনকি সন্তান টির পালিত বাবা মা সন্তান টির আসল পিতার নাম টা দত্তক নেওয়ার সময় জেনে নেয় নি। এখন আমার প্রস্ন হলো সহিহ বুখারির হাদিস অনুযায়ি যে ব্যক্তি জেনে বুঝে নিজের পিতা কে ছেড়ে অন্যের পিতা কে পিতা ডাকবে/ অন্যের বংশকে নিজের বংশ পরিচয় দিবে সে জাহান্নামে যাবে। এই হাদিস টি কি ঐ পালিত সন্তানের উপর প্রযোজ্য হবে? যদি হয় তাহলে এ থেকে বাচার উপায় কি? জাজাকাল্লাহ খায়ের। উত্তর টি ইমেইলে প্রদান করলে বেশি উপকৃত হবো।  ব্যক্তিগত ও পারিবারিক
(4522) আমার বাবা চাকরির শেষে এককালীন কিছু টাকা পেয়েছ।  আমার প্রশ্ন হল এই টাকার অংশ কি আমার বোন ও পাবে কিনা। বোনের বিয়ে হয়েছে এক ছেলে এক মেয়েআছে     ব্যক্তিগত ও পারিবারিক
(4512) আসসালামুআলাইকু, আমি স্যারের অনেক ভক্ত। আলহামদুলিল্লাহ স্যারের ওসিলায় আল্লাহ আমাকে হেদায়েত দিয়েছেন। ইদানিং শয়তানের ওয়াসওয়াসায় কিছুটা ইবাদত বিমুখ হয়ে গেছি। গত কয়েকদিন আগে আমি আমি স্যার কে স্বপ্নে দেখলাম। দেখি উনি আমার সাথে হাত মিলিয়ে বলছেন ''বাবা আমি কিছু না, আল্লাহর কাছে বলো বা ক্ষমা চাও(দুইটার একটা বলেছিলেন! সঠিক আমার মনে নেই)। এই ব্যপারে আমি জানতে চাই এই স্বপ্নের মানে আমি কি বুঝবো?  ব্যক্তিগত ও পারিবারিক
(4511)   আসসালামু আলাইকুম। মুহতারাম আমার বয়স এখন প্রায় ২২। আমি ২০১৭ তে আমার এক মাউলানা ভাইয়ের মাধ্যমে বাসায় একটি মেয়ে কে বিয়ে করি তার পরিবার ছাড়া। বিয়েতে আমার ভাই আমার মা এবং আমার বোন উপস্থিত ছিলেন। এই বিয়েতে মেয়ের পরিবার কোনো ভাবেই রাজি ছিলেন না। পরে আমরা বেশ কিছু দিন সংসার করার পর তার পরিবার আইনের সহায়তায় মেয়ে কে নিয়ে গেছে এবং তার পরে আমরা জানতে পারি যে ওলি ছাড়া নাকি বিয়ে হবে না বাতিল। কিন্তু আবার অনেক থেকে শুনছি বিয়ে হবে তাই আমরা আমাদের সুবিধা মতো মাসালা গ্রহন করে চলছিলাম। এই ভাবে ২০১৮ তে আমাদের মধ্যে ফোনে অনেক মন মালিন্য হওয়ার পরে মেয়ে আমাকে বললো তালাক বলতে আমি বলছি ঠিক আছে তালাক পরে মেয়ে বললো (1 talak 2 talak 3 talak) এই ভাবে বলো তার পরে আমি নিজে দেই নাই লিখি ও নাই তার মেসেজটাই কপি করে শেষে তার নামটা শুধু লিখে পরে পাঠিয়েছি। পরে আমি YouTube এ অনেকের লেকচার শুনেছিলাম যে এক হাযেজে যতো তালাকই দেওয়া হক না কেনো একতালাকই হবে। তাই আমরাও এটাতে আমল করেছি। এই ভাবে অনেক দিন গেলো পরে আবার আমরা একত্রিত হয়ে সংসার শুরু করি আবার ও মেয়ের পরিবারের অবাধ্য হয়ে এবং অনেক দিন পরে আমরা এটা বুঝতে পারলাম আমাদের বিয়ে হয় নাই এটা অনেকের লেকচার থেকে শুনে এবং রাসুল (সঃ) এর সহিহ হাদিস যে অলি ছাড়া বিয়ে বাতিল বাতিল বাতিল তাই আমরা সিদ্ধান্ত নিলাম যে আমরা পৃথক হয়ে যাবো এবং মেয়ের বাবা কে রাজি করিয়ে আবার বিয়ে করবো। যেই কথা সেই কাজ এখন মেয়ে তার বাড়িতে আছে। এখন আমি আমাদের ব্যপারটি কিছু হানাফি আলেমকে জিজ্ঞাসা করেছিলাম ওনারা বলেছেন যে বিয়ে ও হইছে আবার তালাক ও হয়ে গেছে। কিন্তু অনেক আলেম এটা ও বলেছেন এক হায়েজে যত তালাকই দিক ১ তালাক গন্য হবে এবং এটিও রাসুল (সঃ) থেকে সহিহ হাদিস দারা প্রমানিত। এখন আমার প্রশ্নটি ছিলো আমরা আবার মেয়ের বাবা কে রাজি করিয়ে বিয়ে করলে কি সমস্যা হবে? গুনাহগার হবো? কারন হাদিস গুলো তো রাসুল (সঃ) থেকে প্রমানিত।সুতরাং আমরা কি এই হাদিস গুলোর ওপর আমল করে আবার বিয়ে করতে পারি? আমাদের সম্পর্কটা নিয়ে অনেক সমস্যা হয়েছে সামাজিক ভাবে তাই আমাদের বিয়ের কোনো রাস্তা থাকলে ভালো হতো। দয়া করে আমায় একটি বিস্তারিত সমাধান দিবেন। জাজাকাল্লাহু খাইরান   ব্যক্তিগত ও পারিবারিক
(4508) আসসালামু আলাইকুম। আমার পিতার সাথে একটা অতি তুচ্ছ বিষয় নিয়ে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে তিনি আমার হাত নুলা হয়ে যাবে এবং আমি জাহান্নামে যাবো বলে অভিশাপ দেয়। পরে আমি তার কাছে মাফ চেয়ে নেই। সে মুখে বলে যে মাফ করে দিছে কিন্তু আসলে মন থেকে মাফ করছে কিনা জানি না। এর আগেও সে আমাকে অভিশাপ দেয় যার ফলে আমি অর্থনৈতিক ভাবেও খুব একটা ভালো অবস্থায় নেই। এখন আমার প্রশ্ন হলো আমাকে  মাফ করে দেয়ার পরও কি আমার উপর অভিশাপ কার্যকর হবে? অভিশাপ দেয়ার পর যদি পিতা মাতা সন্তানের জন্য দোয়া করে তাহলেও কি অভিশাপ কাজ করবে নাকি দুয়া কাজ করবে? আমি আমার পিতামাতার দোয়ার তেমন কোনো ফলাফল আমার জীবনে দেখি না কিন্তু বদ দোয়া ফলে যায়।  ব্যক্তিগত ও পারিবারিক
(4502) আসসালামু আলাইকুম।
আচ্ছা আমার মা-বাবার সাথে আমাদের এক নিকট আত্নীয়দের(মামা) অনেক গন্ডগোল/ঝামেলা(পারিবারিক কারণে)। কিন্তু আমার সাথে আবার ওই আত্নীয় দের ভালো সম্পর্ক। আমি অনেক চেষ্টা করেও মা-বাবার সাথে তাদের সম্পর্ক ঠিক করতে পারি নাই। এখন আমার মা-বাবা আমাকেও তাদের সাথে সম্পর্ক ছিন্ন করতে বলে। তাদের সাথে মিশতে,কথা বলতে মানা করে।  এখন এক্ষেত্রে আমার করণীয় কি?  মা-বাবার কথা শুনবো নাকি আত্নীয়তার সম্পর্ক রক্ষা করবো?
ব্যক্তিগত ও পারিবারিক
(4497) আসসালামু অলাইকুম, 
আমি আমার নিজের পরিচয় দিতে চাচ্ছি না তার জন্য দুঃখিত, আমার সমস্যাটি শুধু বলছি একটু আমার দিকটা চিন্তা করে উত্তর দিবেন, আমার আব্বু প্রায়ই আমার মা এবং আমাকে কুকুরের বাচ্চা আরও অনেক খারাপ ভাষায় গালি গালাজ করে, কিন্তু আবার নামাজও পড়েন,কিছুদিন আগে আমার অজান্তেই আব্বুর পায়ে পা লেগে যায় আমি না সালাম করে বলেছি দেখি নাই আব্বু, সালাম তো করা যাবে না আমি এই কথাটি হেসে হেসে বলেছি এই কথায় আবার আব্বু রেগে গিয়ে আমাকে হুট করে বলে কীসব নাস্তিকের মতো কথা বলো!নাস্তিক তুমি? কথাটা এইভাবেও বলেনি আসলে খুবই আক্রমণাত্মক ছিলো কথাটি,আব্বু আমাকে অন্য কিছুও বলতে পারতো, আমাকে রাস্তার মেয়ে বলেও গালি দিতে পারতো আমার কোনোরকম লাগতো না।আমি খুব কেঁদেছিলাম এমনকি এখনও কাঁদি যদি আমার অন্যায় এতে সত্যিই হয়ে থাকে এবং আব্বুর এই কথাও যদি বাস্তবে পরিণত হয়ে যায় আল্লাহ্‌ যদি কবুল করে ফেলে এই ভেবে,
আমি খুবই হীনম্মন্যতায় ভুগছি এবং মাথায় খুব এলোমেলো কথা জড়ো হচ্ছে আব্বু কি অন্যায় করেছে?যদি না করে তাহলে আমি কি ভুক্তভোগী হবো? আমি জানি সন্তানকে বাবা শাসন করতে পারে এমনকি মারতেও পারে কিন্তু যেসব গালি দেওয়া আল্লাহ্‌ হারাম করেছেন সেইসব গালি দিয়েও কি সন্তানকে শাসন করা যায়, আল্লাহ্‌ কি এতে কোনো শাস্তিই দিবেন না, শুধু উনি পিতা বলে? জানাবেন প্লিজ,আরেকটা কথা স্ত্রীকে ও সন্তানকে অমানবিকভাবে প্রহার করার ও গালি দেওয়ার কি শাস্তি আল্লাহ্‌ ধার্য করেছেন?আল্লাহ্‌ আমার আব্বুকে নেক হায়াত দান করুন আমি তাই চাই।
ব্যক্তিগত ও পারিবারিক
(4494) আসসালামুআলাইকুম, স্বামীর সমস্যার কারনে বাচ্চা না হলে টেস্ট টিউব বেবী চিকিৎসায় বাচ্চা নেওয়া জায়েজ কিনা? ব্যক্তিগত ও পারিবারিক
(4488) আসসালামু আলাইকুম , আমি একজন গুনাহগার বান্দা। আমি রাতের বেলা মাঝে মাঝে খারাপ জিনিস দেখে নিজেকে ধ্বংসের দিকে ঠেলে দিচ্ছি প্রতিনিয়ত। আবার আমি অনেক নফল ইবাদত ও করি এবং নবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের সুন্নত মোতাবেক সবসময় চলার চেষ্টা করি। এই খারাপ জিনিস থেকে আমি যতই দূরে যেতে চাচ্ছি পারছি না। এ থেকে উত্তরণের উপায়টি বলে দিন আমাকে। আমি খুবই ক্লান্ত হয়ে এই একই গুনাহ বার বার করতে করতে। গুনাহ করার পর খুবই আফসোস হয় এবং তওবাও করি তাও যেন গুনাহ আবার পুনরাবৃত্তি হয়ে যায়।   ব্যক্তিগত ও পারিবারিক
আস সালামু আলাইকুম। ১।আমার বাবা মার বয়স হয়েছে।তার পর ও সামান্য বিষয় নিয়েও তাদের মাঝে সারা দিন তর্ক বিতর্ক চলতেই থাকে।তাদের কে যত বুঝাই যে আপনাদের বয়স,শিক্ষা,মূল্যবোধ অনুযায়ী আপনারা যেভাবে ইদানিং চলছেন বা কথা বলেন সেটা ঠিক হচ্ছেনা।মানুষ জন খারাপ বলবে।আপনারা সাবধান হোন।কিন্তু তারা সাবধান তো হন ই নাই উল্টা কিছু দিন আগে তর্ক বিতর্কের এক পর্যায়ে গালি গালাজ করতে থাকেন তারা।এক সময় আব্বা গিয়ে আম্মুকে মার দেন।আমার সামনেই।আমার বয়স ২৭।এতে আমি রেগে যাই আর বলি যাদের এমন বড় একটা ছেলে আছে অথচ সে বুঝালে ও বুঝতে চান না তার সামনে ঝগড়া মারামারি গালাগালি করছন এভাবে মান সম্মান কি থাকে? এক পর্যায়ে ঝামেলা বাড়ে।আমার ছোট বোন এসে বলে আপনারা বাবা মা হলেও বাবা মা হিসেবে আপনাদের ভূমিকা কী? আপনারা কেউ ই ভাল না।সে সময়েও তর্ক করতে থাকে তারা।এক সময় আমি গালি দেই বাবা মা কে।এতে আব্বা আমাকে মারতে এলে আমি বলি আসেন মারতে। আমিও মারব।এই ঘটনায় আব্বা কষ্ট পায়।তবে এখন সব স্বাভাবিক।আমার ব্যবহারে আমার খারাপ লেগেছে। আমার কি করনীয়? ২।আমার আব্বা আম্মা রেগুলার নামাজ পড়েন না।তাদের কে বুঝালে অত সিরিয়াস হন না।মাঝে মাঝে অনেক বুঝালে হয়ত এক -দুই ওয়াক্ত পড়েন। কি করতে পারি? ৩।আমি অর্থনীতিক দিক দিয়ে খারাপ অবস্থা তে আছি।মাস্টার্স পাশ করে দেড় বছর যাব বেকার।আমাকে একটি দুয়া শিখিয়ে দিন যেন আল্লাহ দ্রুত আমাকে হালাল ও সম্মান জনক জীবিকার ব্যবস্থা করেন।আর আমার সব সমস্যার সমাধান এর জন্য ও একটি দুয়া বলে দিন। ৪।প্রায় ৪ বছর যাবত একটি মেয়ে কে পছন্দ করি।আমাদের ২ পরিবার ই জানে।আমরা চাইছিলাম কাবিন করে রাখতে। আর চাকরি পাবার পর বউ বাসায় আনতাম।তবে আমার মা বেকে বসে আছে। এখন কোন বিয়েই করা যাবেনা।আগে চাকরি হবে তারপর বিয়ের কথা তিনি ভাববেন।এদিকে মেয়েটিকেও ত বসিয়ে রাখবে না তাদের বাবা মা।তারা কাবিনে রাজি ছিল।আমার এখন কি করনীয়?   ব্যক্তিগত ও পারিবারিক
(4485) আসসালামু আলাইকুম। আমি অনেক দিন যাবত একটি ডিপ্রেশনে ভুগছি। হানাফি মাজহাবে শর্ত সাপেক্ষে বিয়ে হয়। এখন যদি শর্ত গুলা পূরন না হয় তাহলে কি সে বিয়ে হবে? আর আমি অনেক দিন যাবত বিয়ে করার প্রয়োজন বোধ করছি যাতে করে আমি কবিরাহ গুনাহ থেকে বেচে থাকতে পারি। কিন্তু আমার মা বলে ২-৩ বছরের আগে না। আর মূল কথা হচ্ছে আমার আগে একটা সম্পর্ক ছিলো যেটা নিয়ে অনেক ঝামেলা হয়েছে তাই আমার মা চাচ্ছে এখন বিয়ে হলে ঐ মেয়ের সাথেই আর নয়তো ২-৩ বছর পরে দেখা যাবে। কিন্তু ঐ মেয়ের বাবা দিতে রাজি না এখন। মেয়ের বাবা শর্ত দিছে আমার পড়া শেষে চাকুরি নিলে তখন দিবে আর সেটার জন্য আরো ৩-৪ বছরের প্রয়োজন। মেয়ে তার বাবা কে অনেক চেষ্ঠা করেছে রাজি করাতে পায়ে দরেছে কান্না করছে যে আমাদের এই পাপের সম্পর্ক হতে যাতে বিয়ে দিয়ে মুক্ত করে কিন্তু মেয়ের বাবা দিবেই না। এখন আমার প্রশ্নটি হচ্ছে আমি যতটুকু জানি অলি ছাড়া বিয়ে হবে না। এটার জানার পর ও কি আমি হানাফি মাজহাব অনুযায়ী যদি বিয়ে করে ফেলি তাহলে শর্ত সাপেক্ষে আমার বিয়ে জায়জ হবে? নাকি আমি গুনাহগারই হতে থাকবো? এবং আমি যদি আমার মা বাবা কে জানিয়ে অন্য কাউকে বিয়ে করে ফেলি পাপ মুক্ত থাকার জন্য তাহলে কি আমি পিতা মাতার অবাধ্য বলে গন্য হবো এবং ঐ গুনাহে গুনাহগার হবো? দয়া করে আমার সমস্যাটির সম্পূর্ন সমাধান দিবেন। অনেক সমস্য দেখা যায় প্রশ্ন করেও উত্তর পাওয়া যায় না। আশা করি আমি উত্তরটি পাবো কারন আমার সমস্যাটি খুবই জটিল আমার সমাধান দরকার। ব্যক্তিগত ও পারিবারিক
(4480) আসসালামু আলাইকুম, আমি আগে নামাজ, রোযা, যাকাত দেয়া সব চেষ্টা করতাম করার জন্য কিন্তু সহিহ ভাবে অনেক কিছু হত না। বর্তমানে আল্লাহর রহমতে আমি চেষ্টা করছি যত সহিহ ভাবে ইসলামিক জীবন যাপন করা যায়। আমার স্ত্রী সহিহভাবে (বিশেষ করে পর্দা করা) ইসলামিক জীবন যাপনের সব কিছু মানতে চাইতেছে না, তার মতে হটাত করে এত পরিবর্তন তার পক্ষে সম্ভব না। আমার স্ত্রীর কথা তার সময় লাগবে সব কিছু সহিহ ভাবে চর্চা শুরু করার জন্য এবং আমার স্ত্রী ভাষ্য আমাকে অপেক্ষা করতে হবে ও  তাকে সময় দিতে কিন্তু কত সময় এই বিষয়ে কিছু বলে না, এই বিষয়ে আমাদের দুই জন এর মধ্যে মতের অমিলের জন্য সম্পর্ক খারাপ এর দিকে যাচ্ছে।  এখন আমার প্রশ্ন ইসলামিক দৃষ্টিকোণ থেকে আমার করনীয় কি? আমি কোন ভাবেই "দাইয়ূ্স" হতে চাই না...আপনাদের কাছে পরামর্শ চাই। ব্যক্তিগত ও পারিবারিক
(4477)  আসসালামুয়ালাইকুম  আমার ঘটনাটি একেবারে ব্যক্তিগত তাই প্রশ্নের উত্তরটি আমাকে ইমেলে দিলে কৃতজ্ঞ থাকবো। আমি আমাদের পরিবারের সবার ছোট, আমার বোনের বিয়ে হয়েছে আমি যখন ইন্টার এক্সাম দিবো তখন। তারপর থেকেই আমার বিয়ের জন্য মাঝেমাঝে প্রস্তাব আসতো কিন্তু, ছেলে পক্ষ যখন শুনতো আমার গায়ের রং কালো তখন আর সামনে আগাতো না অথবা কেউ যদি বাড়িতে আসতো ফিরে গিয়ে বলতো তারা আরো সুন্দর মেয়ে চায়। কিন্তু বাস্তবিক অর্থে আমি অতো কালো না, শ্যামলা। কিন্তু আশ্চর্যের বিষয় হলো কোন ছেলের পক্ষের ই আমাকে পছন্দ হতো না। এভাবে চলতে চলতে আমার মাস্টার্স কমপ্লিট হয়ে যায়, তারপরও একি অবস্থা। এর মধ্যে আমি যখন মাস্টার্সে পড়ি তখন একটা সরকারি স্কুলে জব হয়। জব হওয়ার ৪ বছর পর একটা ফ্যামিলি থেকে বিয়ের প্রস্তাব আসে এবং ছেলের বাবা না থাকায় তার মামা এবং খালু অভিভাবক হিসেবে কথাবার্তা বলে বিয়ে ঠিক হয়, কিন্তু বিয়ের দিন ছেলে তার বোনের বিয়ের পুরাতন শাড়ি এবং এমিটেশনের জিনিস পত্র নিয়ে বিয়ে করতে আসে। এর মূল কারন ছিল ছেলে এই বিয়েতে রাজি ছিল না এবং ছেলের মায়ের কথা ছিল আমার বিয়ের আগের চাকরি তাই আমাদের পরিবার থেকে গয়নাঘাটি। শাড়ি, কসমেটিক্স একেবারে সবকিছু দিয়ে বিয়ে দিবে, কিন্তু যখন বিয়ের কথা ফাইনাল নয় তখন তার মামা বা খালু এসব কিছুই উল্লেখ করে নি। যার কারনে বিয়ের অনুষ্ঠানে আমার ভাইয়া একটু রাগারাগি করেছিল। কিন্তু তারপর আমি আমার এবং আমাদের পরিবারের কথা বিবেচনা করে বিয়ে তে রাজি হয়ে বিয়ে করি। কিন্তু তাদের বাড়িতে যাওয়ার পর ছেলের কথা ছিল সে আমার কোন দায়িত্ব বা ভরণপোষণ দিতে পারবে না কারন এ বিয়েতে তার মত ছিল না, আমার সম্পর্কে সে কিছুই জানে, আমি যেন তার কাছে কোন অধিকার না চাই। এভাবে ৫ মাস চলার পর যখন দেখলাম আমার পক্ষে এখানে সংসার করা সম্ভব নয় কারন এই মাসের মধ্যে ৪ মাস একি কথা ছিল সে আমার সাথে সংসার করতে পারবে না, পরের ১ মাস আর যোগাযোগ হয় নি, তখন ডিভোর্সের সিদ্ধান্ত নেই। ইসলামিক এবং আইনগত ভাবে ৩ মাস পরে ডিভোর্স কার্যকর হয় কিন্তু কার্যকর হওয়ার ৫০ দিন আগে সে যখন ডিভোর্স এর কাগজ পায় একবারের জন্যও সে ফোন দেয় নি এবং আমাদের কারো সাথেই যোগাযোগ করার চেষ্টা করে নি এমনি দেনমোহরের দাবি সম্পর্কেও কিছু বলে নি।  আমি সবসময়  নামাজ রোজা   সঠিকভাবে পালন করার চেষ্টা করি এবং ইসলামিক অন্যান্য  কিছু নিয়ম কানুনও মানার চেষ্টা করি। আমার ডিভোর্স হয়ে গেছে প্রায় ১ বছরের বেশি হয়ে গেছে , এখনো আগের মত, ঠিক মতো কেউ প্রস্তবা পাঠায় না। কারন একটাই আমি কালো, আমাকে দেখতে কার পছন্দ হয় না, যদি কেউ আসেও তাহলে আমাকে পছন্দ হয় না।   আমি বুঝতে পারছি না এক্ষেত্রে আমার কি করনীয়? আমি এমন এক পরিস্থিতি দিয়ে যাচ্ছি , এভাবে একটা মানুষ বেচে থাকতে পারে না। আমি এসব চিন্তায় , অসম্মানে অসুস্থ হয়ে গেছি। আমাকে একটু সঠিক পরামর্শ দেওয়ার জন্য অনুরোধ করছি। ব্যক্তিগত ও পারিবারিক
(4476) আমার পরিবারের সদস্য সংখ্যা ৪ জন (বাবা, মা, আমি আর আমার ছোট বোন)। বাবা, মা, বোন একসাথে থাকে মফঃস্বলে থাকে আমি ঢাকায় চাকুরী করি এবং মাঝে মধ্যে ছুটিতে মফঃস্বলে বেড়াতে আসি।  প্রশ্ন- ১ঃ আমার বোন ঠিকমত নামাজ পরে না, পর্দাও করে বাইরে বের হয় না এবং সোশিয়াল মিডিয়াতে নিজের ছবি আপ্লোড করে। বড ভাই হিসেবে আমি নিষেধ করি যখন দেখতে  এরকম কিছু দেখতে পাই। এক্ষেত্রে যদি ছোট বোন কথা না শুনে আমার বাবা/মা/ আমি তিন জনই গুনাহগার/ দাইউস হবো? প্রশ্ন- ২ঃ আমার বাবা নামাজ পরে কিন্তু তিনি বলতে গেলে অপরিষ্কার হয়ে থাকে। মাঝে মাঝে খেয়াল করলে দেখি ওজু ঠিকমত করে না। আর নামাজের কিরাত সবসময় ভুল করে উচ্চারণ করে। এক্ষেত্রে আমি কয়েকবার বলার পরেও নিজেকে কোন পরিবর্তন করার চেষ্টা করেনি। এক্ষেত্রে উনাকে ভুল ধরিয়ে দিলে কোন কর্ণপাত করার চেষ্টা করেনা, এড়িয়ে চলে। তার যেটা ভালো মনে করে সেটাই করে। এক্ষেত্রে আমার কি করণীয়? প্রশ্ন- ৩ঃ পরিবারে এরকম সদস্য যে ইসলাম ঠিকমত পালন করে না বা ভুল করলে বলার পরেও সংশোধন করেনা। তাকে কতটুকু/ কতবার নসীহত করার পর নিজেকে দায়মুক্ত মনে করা যায়? সেসব সদস্য যদি স্বাবলম্বী না হয় তাদেরকে কি ভরণ পোষণ দেয়া যায়েজ বা ভরণ পোষণ দিলে কি গুনাহগার হবো? ব্যক্তিগত ও পারিবারিক
(4474) আসসালামুয়ালাইকুম,
আমি আমিনা। সঙ্গত কারণে পরিচয় গোপন করে আপনার কাছে পরামর্শ চাচ্ছি। ২০১৪সালে আমি বিয়ে করেছি আমার পছন্দে এবং বিয়ের আগে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেছি। আমি দূরভাগ্যবশত জিনাহ তে লিপ্ত হয়ে যায় ২০১৮ সালের মাঝামাঝি। আমার স্বামী আলাদা থাকছে আজ প্রায় আট নয় মাস। আমি আমার ভুল এরজন্য অনুতপ্ত , হারাম সম্পর্ক থেকে বেরিয়ে এসে স্বামীর সাথে থাকতে চাই। এমতাবস্থায় ইসলামী বিধান মতে আপনার পরামর্শ চাই।দয়া করে আপনার মূল্যবান পরামর্শ দিয়ে সাহায্য করুন। ধন্যবাদ।
ব্যক্তিগত ও পারিবারিক
(4471) আস-সালামু আলাইকুম স্যার, ছোট বেলায় আমার বাবা মারা যান, ৮ বছর আগে আমার মা মারাগেছেন, আমি না বুজে তাদের সাথে অনেক অন্যায় করেছি, বিশেষ করে আমার মায়ের সাথে আমি অনেক সময় অ-ইচ্ছাকৃত অপরাধ করেছি, সয়তানের ধোকায় ও অন্যায় করেছি, এখন আমি অনুতপ্ত, আমি এখন তাদের জন্য কোন আমল বা দোয়া করলে উনারা কবরে শান্তি পাবেন, আমি খুবই অনুতপ্ত , আমার কাছে আমার মা আমার জান ছিলেন, আমার মায়ের জন্য সব সময় কান্না করি, আমার আল্লাহর কাছে একটাই চাওয়া আল্লাহ যেন আমার মা বাবাকে জান্নাত নসিব করেন. আমি কি করলে আমার মা বাবা আমার উপর খুশি হবেন.  ব্যক্তিগত ও পারিবারিক
(4470) আস-সলমু আলাইকুম স্যার,  আমার বিয়ে হয়েছে ৮ বছর চলছে,  পারিবারিক ভাবে,  আমার  স্বামী অশিক্ষিত, বাংলা ও পড়েনি  কোরআন পড়েনি, এবং খুবই মুরখ, আর গরিব, গরিব আল্লাহ করেছেন, কিন্ত সুন্নাহ বুজেনা, বিয়ের সময় দেন-মোহর ৫ লক্ষ টাকা উসল দারয্য করে বিয়ে হয় কিন্ত উনি আমাকে বিয়ের রাতে ৩শত টাকা দিয়ে মাফ চায় আমি উনাকে বুজিয়ে পারিনি, এখনও  আমার দেন-মোহর পরিশোধ করেরনি, উনি বলেন বাপ দাদা বিয়ে করেছেন এই ভাবে এসব উনি মানেন না,  আমি হাদীস বললে আমাকে বলেন আমি কমি,  আগে নামাজ পড়তেন না এখন পড়েন. আমাকে গালা-গালি ও করেন মা বাবা তুলে, মাঝে মধ্য আমাকে মারেন,  আর ও কিছু বিষয় আছে যা উনি করেন তা বলার মত নয়, খাওয়ার কুটা দেন. আমার সারে ৪ বছরের একটা মেয়ে ও আছে, উনি সুন্নাহ একদম বুজতে চায় না, কথায় কথায় বলে যে অন্য কারো কাছে চলে যা,  তরে দিয়ে আমার চলবে না, মিথ্যা কথা বলেন ও কথা রাখেনা.  আমি খুবই অশান্তিতে আছি, আমি কি করব বুজতে পারছিনা.  ব্যক্তিগত ও পারিবারিক
(4469) আসসালামু আলাইকুম, মোহতেরাম আমার দাড়ি সেভড না করার কারনে নরম ও কোকড়ানো হয়ে থাকে সব সময় এবং আমার মুখে বিভিন্ন অংশে দাড়ি নেই আবার জামিতে দাড়ির পরিমান খুবই অল্প যা অন্যদের চোখে অস্বাভাবিক দেখালেও আমি এতে সন্তুষ্ট কারন আল্লাহ আমাকে এভাবেই সাজাচ্ছেন...আমার প্রশ্ন হচ্ছে মোহতেরাম 1-আমি কি দাড়ি স্ট্রেইট করে সোজা করে রাখতে পারবো(আমার নিয়ত লোক দেখানো না,নিজের কাছে সুন্দর লাগার জন্যে)2- দাড়ি বৃদ্ধীর জন্য কোন ঔষধ ব্যবহার করা যাবে কি? ব্যক্তিগত ও পারিবারিক
(4459) আসসালামু আলাইকুম। একজন আর্থিক ভাবে ঋণের বোঝায় পড়ে খুব বিপদে পড়েছে।
সে কি এমন কোন সামর্থ্যবান পরিবারের সাথে বিয়ের সম্পর্ক করতে পারে যারা তাকে বিয়ের পর আর্থিক ভাবে সাহায্য করে উক্ত সমস্যা হতে বের হতে সাহায্য করবে? এর মাধ্যমে যদি দু'টি পরিবারই উপকৃত হয় তা হলে এটা কি শরীয়াহ্ মোতাবেক হুকুম কী হবে?
তবে ছেলের উদ্যেশ্য এই নয় যে টাকার জন্য বিয়ে করা, উদ্যেশ্য আল্লাহর হুকুম পালন করা তবে হয়তো ঐ পরিবারের সাহায্যের কারণে সমস্যার নিষ্পত্তি হলো। এটা কি জায়েজ হবে?? 
জানালে কৃতজ্ঞ থাকবো।জাযাকা-আল্লাহ্ খাইর। 
ব্যক্তিগত ও পারিবারিক
(4455) আসসালামুআলাইকুম, প্রাণি জবেহ এবং বিয়ে পড়ানোর সময় ছেলে মেয়ের অজু থাকা বাধ্যতামূলক কিনা? ব্যক্তিগত ও পারিবারিক
(4451) আমি চার বছর অসুস্থ। আমি অনেক ধরণের ডাক্তার এবং কিছু পণ্ডিতের সাথেও গিয়েছি যারা আমাকে তাবিজ এবং কিছু তেল, পানি দিয়েছিল। আমি তাবিজ পরতে অস্বীকার করলাম। তবে আমার পরিবার আমাকে এটি পরতে বাধ্য করেছিল। আমি এটি পরেছিলাম কিন্তু আমি এটি সরিয়েছি। কিছু হুজুর বলেছেন আমার জ্বিন সমস্যা আছে আবার কেউ বলেছে নেই। সবাই আমাকে তাবিজ দিতে চায়। আমি রুকিয়া করেছি। তবে আমি এখনও অসুস্থ। বাংলাদেশে রোগী একজন সঠিক ডাক্তার খুঁজে পেতে অনেক ভোগেন। তাই আমি যে ডাক্তারগুলিতে গিয়েছি তাদের মধ্যে তারা আমাকে কিছু ওষুধ এবং কিছু টেস্ট দিয়েছে। কোনো লাভ হয়নি। আমার পরিবার মনে করে যে আমার মানসিক সমস্যা আছে। তবে আল্লাহর প্রতি আমার বিশ্বাস রয়েছে। আমি বিশ্বাস করি যে আমার কোনও মানসিক সমস্যা নেই। আমি প্রেক্টিছিং মুসলিম ছিলামনা না তবে আমি চার বছর আগে এটি সম্পর্কে শিখতে শুরু করি। তো, আমার পরিবার এবং ডাক্তারদের অযত্নের জন্য আমার অসুস্থতা খুঁজে পাওয়া যায় না আর আমাকে দিন দিন আরও অসুস্থ হওয়ার দিকে যাচ্ছি। আমি এটি গবেষণা করেছি এবং আমি মনে করি আমার স্নায়বিক সমস্যা আছে। মাল্টিপল স্কেলেরোসিস বা পিনচ্দ নার্ভের মতো কিছু রোগ। আমার এখন 21 বছর। তো, এখন আমার কী করা উচিত? আমি যদি ঘরে বসে থাকি এবং অর্থোপার্জন না করার মতো কিছু না করলে কি আমি দোষী হব? কারণ আমি এতটা অসুস্থ ও দুর্বল হয়ে পড়েছি যে কাজ করা এবং বাইরে যেতে কষ্ট হয়। আমি পরিবারের সবাইকে বোঝানোর চেষ্টা করেছি। এখন তারা আমাকে মানসিকভাবে রোগী এবং শারীরিকভাবে অসুস্থ করতেছে যত্নের অভাবে। এছাড়াও আমার যৌন সম্পর্কে দুর্বলতা আছে। আমি কি বিয়ে করতে পারি? আমি প্রতিদিন নামায, দোয়া করি। ফরয, ওয়াজিব, সুন্নত আলহামদুলিল্লাহ মেনে চলি এবং চেষ্টা করি। মসজিদে যেতেও কষ্ট হয়ে গেছে এখন এবং পড়ালেখা করাটাও। ব্যক্তিগত ও পারিবারিক
(4446) আসসালামুয়ালাইকুম। আমি একটা বিষয়ে জানার জন্য আপনাদেরকে নক দিয়েছি।
আমি বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের একজন ছাত্র। দুনিয়াবি পড়ালেখা সামান্য করলেও, আমি অত্যন্ত লজ্জিত হয়ে জানাচ্ছি দ্বীনি পড়ালেখা আমার তেমন নেই। আমি শুনেছি দাবা খেলা নাকি ইসলামে হারাম।
ছোটবেলা থেকে দাবা খেলার প্রতি আমার আগ্রহ। কলেজে উঠার পর কিছুটা পড়ালেখার চাপ এবং কিছুটা দাবা খেলতে পারে এমন বন্ধুর অভাবে তেমন খেলা হয়নি। ভার্সিটিতে উঠে এখন আমি এটার প্রতি আরো বেশী আগ্রহী হয়ে পড়ি।
এখন আমার প্রশ্ন, দাবা খেলা কী আমার জান্নাতে যাওয়ার জন্য কোন বাধা হবে কীনা?
এক্ষেত্রে আমার কী করনীয়?
ব্যক্তিগত ও পারিবারিক
(4445) আসসালামু আলাইকুম, শাইখ,আমি একজন সেনা সদস্য আমি আল্লাহ তাআলা দ্বীন কে পরিপূর্ণ ভাবে মেনে চলতে চাই, কিন্তু চাকুরী জন্য অনেক সময় পারি না,এখানে নামাজের তেমন সুযোগ দেওয়া হয় না এমনকি ব্যস্ততার কারণে নামাজ সময় মতো ও জামাতে আদায় করতে পারি না পাশা পাশি হাটুর উপড়ে আফ প্যান্ট পড়ে ব্যাম করা লাগে, প্রত্যেক দিন দাড়ি শেভ করা লাগে এবং অনেক বেদআত কাজ করা লাগে। শাইখ আমি মন থেকে দ্বীন পালন করতে পারি না এক্ষেত্র আমার কি করণিয় চাকুরী ছেড়ে দেওয়া ঠিক হবে আমি একান্ত ভাবে আপনার কাছে জানতে চাচ্ছি। ব্যক্তিগত ও পারিবারিক