দাওয়াতী কার্যক্রম

সাধারণ মুসলিমদের মধ্যে ধর্ম-বিমুখতা ও নৈতিক অবক্ষয় বাড়ছে। হারিয়ে যাচ্ছে যুগযুগের লালিত ধর্মীয় ও মানবীয় মূল্যবোধগুলো। বাড়ছে অপরাধ, দুর্নীতি এবং পারিবারিক ও সামাজিক সহিংসতা। মসজিদে বা ওয়ায মাহফিলে এসে ধর্মীয় উপদেশ শোনার আগ্রহও হারিয়ে ফেলছেন অনেকে। এজন্য দীনদার মুসলিমদের অন্যতম দায়্তিব এ সকল অসচেতন মুসলিমদের কাছে যেয়ে দীনের দাওয়াত পৌছে দেওয়া।
মহান আল্লাহ বলেছেন : “খারাপকে প্রতিরোধ কর উত্তম দিয়ে” (সূরা-২৩ মুুমনূন: ৯৬) পুনশ্চ সূরা ১৬-নাহল: ১২৫; আনকাবুত: ৪৬; সূরা-৪১ ফুসসিলাত ৩৪)। রাসূলুল্লাহ (সা.) বলেছেন: সুসংবাদ দাও, ভীত করো না; সহজ করো, কঠিন করো না।” (বুখারী ও মুসলিম) এ মূলনীতির ভিত্তিতে আস-সুন্নাহ ট্রাস্ট সাপ্তাহিক ও মাসকি ময়দানী দাওয়াতী কাফেলার ব্যবস্থাপনা করেছে। সাধারণ মানুষদের ঈমানী সচেতনতা ও নৈতিক মূল্যবোধ উজ্জীবিত করা, ব্যক্তিগত, পারিবারিক ও সামাজিক জীবনে ইসলামী মূল্যবোধ ও বিনম্রতা ও দাওয়াহ-মুখিতার প্রচার করা আস-সুন্নাহ ট্রাস্টের ময়দানী দাওয়াতী কর্মকান্ডের মূল উদ্দেশ্য।
এছাড়া এদেশের সখ্যক মুসলিমকে কৃস্টান প্রচারকগণ ঈসায়ী মুসলিম বা ঈসায়ী তরকীার মুরিদ হওয়ার নামে র্র্শান্তরিত করছেন। ধর্মান্তরিত হওয়ার পরে তাদের সকল পাপ যীশু খৃস্ট বহন করবেন বল নিশ্চয়তান দিচ্ছেন। একে পাপ, অপরাধ, অনাচার ও দুর্নীতির স্বাধীনতা বলেই গণ্য করছেন ধর্মান্তরিতগণ। এছা ধর্মপ্রচার ও ধর্মান্তর প্রক্রিয়ার মধ্যে তারা ইসলাম, কুরআন ও ইসলামের নবী মুহাম্মদ (সা.)-এর বিরুদ্ধে অত্যন্ত অশালীন মতামত প্রকাশ করছেন যা অনেক সময় অসহিষ্ণুতা ও সংঘাতের পরিবেশ সৃষ্টি করছে। এজন্য দীনদার মুসলিমদেরকে খারাপের প্রতিরোধে উত্তম আচরণের সুন্নাত পদ্ধতি অনুশীলনের দাওয়াত দেওয়া, খ্রস্টান প্রচারকদের বক্তব্যের বিরুদ্ধে উত্তেজিত না হয়ে জ্ঞানভিত্তিক ও শালীন উত্তর প্রদানের প্রশিক্ষণ, ধর্মান্তরিত মুসলিমদেরকে ইসলামের দাওয়াত দেওয়া, খৃস্টান প্রচারকদের
অপপ্রচার রোধে প্রয়োজনে বিতর্কে অংশ নেওয়ার জন্য দাওয়াহ বিভাগের তত্ত্বাবধানে নিয়মিত ময়দানী দাওয়াতী কর্মকান্ড পরিচালিত হচ্ছে।
দাওয়াহ বিবাগের শিক্ষক ও ছাত্রগণ ছাড়াও ট্রাস্টের বিভিন্ন বিভাগের ছাত্র-শিক্ষকগণ এবং আগ্রহী দীনদার মুসলিমগণ এতে অংশ গ্রহণ করেন। প্রতি সপ্তাহে ১ দিনের জন্য এবং মাসে একবার ৪ দিনের জন্য দাওয়াতী কাফেলা বের হয়।
ঝিনাইদহ, মাগুরা, যশোর, চুয়াডাঙ্গা, মেহেরপুর, খুলনা, ঢাকা, ময়মনসিংহ, কিশোরগঞ্জ, জামালপুর, পঞ্চগড় ইত্যাদি জেলার বিভিন্ন শহর ও গ্রামে মুসলিম, অমুসলিম, ধর্মান্তরিত খৃস্টান ও খৃস্টধর্ম প্রচারকদের মধ্যে দাওয়াতী কার্যক্রম পরিচালনা করা হচ্ছে। আগ্রহী ইমাম ও ধার্মিক মুসলিমদেরকে িএ বিষয়ে স্বল্পকালীন প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়। প্রয়োজনীয় পুস্তিকা, প্রচারপত্র প্রকাশ ও বিলি করা হয়।